1. »
  2. আন্তর্জাতিক

নিজের সেনাদের আফগানিস্তানে যুদ্ধাপরাধের প্রমাণ পেল অস্ট্রেলিয়া

বিডি প্রেস ডেস্ক রিপোর্ট বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০ ০৪:০২ পিএম | আপডেট: বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০ ০৪:০২ পিএম

নিজের সেনাদের আফগানিস্তানে যুদ্ধাপরাধের প্রমাণ পেল অস্ট্রেলিয়া

অস্ট্রেলিয়ার সামরিক বাহিনী আফগানিস্তানে যুদ্ধাপরাধ করেছে বলে যে অভিযোগ উঠেছিল তা তদন্ত করে দেখার জন্য একটি এজেন্সি গঠন করেছিল অস্ট্রেলিয়া। সম্প্রতি তদন্ত প্রতিবেদনে বেরিয়ে এসেছে যে, আফগানিস্তানে ইঙ্গ-মার্কিন নেতৃত্বাধীন অভিযানে নিজের সেনাদের যুদ্ধাপরাধের প্রমাণ পেয়েছে দেশটি। ওই অভিযানে অস্ট্রেলীয় সেনারা হত্যা করেছিল বেসামরিক আফগানদের। চার বছর তদন্তের পর বৃহস্পতিবার ওই প্রতিবেদন প্রকাশ করে অস্ট্রেলিয়ার সামরিক কর্তৃপক্ষ (এডিএফ)।

২০০১ সালে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে শুরু হওয়া ইঙ্গ-মার্কিন অভিযানে অস্ট্রেলিয়ার সেনা সদস্যরা শিশুসহ নিরস্ত্র মানুষকে হত্যা করেছিল বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ পায়। যার জেরে ২০১৬ সালে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে অস্ট্রেলিয়া। যদিও শুরুর দিকে দেশটির সরকার বিষয়টি চাপা দেয়ার চেষ্টা করেছিল।
বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার চিফ অব ডিফেন্স ফোর্স জেনারেল অ্যাঙ্গাস ক্যাম্পবেল জানান, অস্ট্রেলিয়ার বিশেষ বাহিনী আফগানিস্তানে নিরস্ত্র বন্দী, কৃষক বা বেসামরিক নাগরিকদের হত্যা করেছিল বলে তদন্ত কমিটি প্রমাণ পেয়েছে। প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২৩টি ঘটনায় ৩৯ আফগান নাগরিককে হত্যা করেছিল অস্ট্রেলিয়ার সামরিক সদস্যরা। এর জন্য দেশটির স্পেশাল এয়ার সার্ভিস রেজিমেন্টের ২৫ জন সদস্যরা দায়ী।  এ ব্যাপারে নির্ভরযোগ্য তথ্য পাওয়া গেছে।

অপরাধ ঘটানোর সময় দায়ী সেনারা ‘বিভ্রান্ত’ ছিল না বলে জেনারেল ক্যামবেল জানান। ভুলবশতও এসব মানুষকে হত্যা করা হয়নি। যুদ্ধের ইতিহাসে এ ঘটনাকে ‘লজ্জাজনক’ বলে আখ্যা দেন অস্ট্রেলীয় শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা।

বিবিসি এক খবরে বলেছে, এ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশের পর আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানিকে ফোন করে গভীর দুঃখ প্রকাশ করেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। যুদ্ধাপরাধের জন্য দায়ী অস্ট্রেলীয় সেনাদের বিচারের সম্মুখীন করা হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে। মরিসন বলেন, অস্ট্রেলিয়া বিষয়টি এমন ভাবে মোকাবিলা করবে যাতে ন্যায় সমুন্নত থাকে এবং দেশের সামরিক বাহিনীর সততা নিশ্চিত করা যায়।