1. »
  2. শিল্প সাহিত্য

বৃটিশ-পাকিস্তান-বাংলাদেশ তিন কালের সাক্ষী গোসাই পাল!

বিডি প্রেস ডেস্ক রিপোর্ট শনিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৫:২৪ পিএম | আপডেট: শনিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৫:২৪ পিএম

বৃটিশ-পাকিস্তান-বাংলাদেশ তিন কালের সাক্ষী গোসাই পাল!

তিন কালের সাক্ষী বগুড়ার আদমদীঘির উপজেলা সদরের তালসন গ্রামের ভাগ্যবান গোসাই চন্দ্র পাল। ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে তার বসয় হলো ১০৩ বছর ৬ মাস। পারিবারিক দাবি মতে গোসাই চন্দ্র পালের জন্ম ১৯১৭ সালে জুন মাসের কোন এক দিনে।

তালসন গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, গোসাই চন্দ্র পাল বর্তমানে অত্র এলাকার সবচেয়ে প্রবীন। গোসাই চন্দ্র পালের পিতার নাম মৃত গুরুচরণ পাল, মাতার নাম মৃত সাবিত্রী পাল। গোসাই চন্দ্র পালের চার স্ত্রী এবং ৭ ছেলে ও ৬ মেয়ে। এরমধ্যে ২ স্ত্রী মৃত্যু করেছেন এবং বর্তমানে ২ স্ত্রী, ৭ ছেলে ও ৬ মেয়ে জীবিত রয়েছেন। বর্তমানে ছেলে-মেয়ে, নাতি-নাতনী  মিলে তাঁদের পরিবারের সদস্য সংখ্যা ৪৮ জন।  
 
তালসন গ্রামের পাল পাড়ার  গোসাই চন্দ্র পাল জানান, বর্তমান তার বয়স ১০৩ বছর ৬ মাস। কিন্তু এখনও বয়সের ভারে নুয়ে পড়েনি। তিনি একজন তরতাজা যুবকের ন্যায় হাটা চলাফেরা, সকল কাজ-কর্ম করাসহ স্পষ্টভাবে পত্রিকা পড়া, এমনকি বই পড়তেও পারেন। একই সাথে তিনি ভালভাবে শুনতে ও চশমা ছাড়াই খালি চোখে দেখতে পারেন। বৃদ্ধ গোসাই চন্দ্র পাল বলেন, আমার চলাফেরা করতে কোন সমস্যা হয় না এবং খাওয়া দাওয়াও স্বাভাবিক। তিনি এখনও নিয়মিত নিজ বাড়ীর মন্দিরে পূজা অর্চনা করে থাকেন।
তিনি আরও বলেন, তার জীবন দশায় বৃটিশ, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ দেখলেন। তিনি বর্তমানে তালসন গ্রামে তার পৈত্রিক বাড়িতে বসবাস করেন। শতবর্ষী এই বৃদ্ধকে এলাকার সর্বজন সকলেই শ্রদ্ধা ও সম্মান করেন।